কুলাউড়ার পৌর মেয়রকে ফেইসবুক লাইভে প্রাণনাশের হুমকি!আত্নগোপনে সন্ত্রাসী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪ ১১:০৫

কুলাউড়ার পৌর মেয়রকে ফেইসবুক লাইভে প্রাণনাশের হুমকি!আত্নগোপনে সন্ত্রাসী

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালিসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে কুলাউড়ার চিহ্নিত শীর্ষ সন্ত্রাসী সুন্দর আলী (৪০)। রোববার রাতে মেয়র কুলাউড়া থানায় এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ (নং-৮৬৮) দায়ের করেন।  জানা যায়, সন্ত্রাসী সুন্দর আলীর বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় ১৫টি মামলা রয়েছে। পুলিশের ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে তার এই বেপরোয়া সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড জনমনে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা বাড়াচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দিন দিন সে বেপরোয়া হয়ে উঠছে। ঠুনকো বিষয় নিয়ে সে যে কারও সঙ্গে ঝগড়া লাগিয়ে পরে তার বাহিনী নিয়ে দলবলসহ আক্রমণ চালায়। তার ভয়ে দুর্ভোগগ্রস্তরাও মুখ খুলতে নারাজ। মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদের দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলার মনসুর গ্রামের মৃত ছিদ্দেক আলীর পুত্র সন্ত্রাসী সুন্দর আলীর বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় বর্তমানে ১৫টি নিয়মিত মামলা রয়েছে। এরমধ্যে সে গণধর্ষণসহ ২টি নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় পলাতক আসামি। দুর্ধর্ষ এই সন্ত্রাসী সুন্দর আলীর বিরুদ্ধে কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেনু একটি মামলা দায়ের করেন।

 

উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মইনুল ইসলাম সবুজ নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে সন্ত্রাসী সুন্দর আলী ও তার সহযোগীদের সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হন। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি আপস নিষ্পত্তির নামে মামলাটি প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হন। ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ নেতারা  যেখানে অসহায় সেখানে সাধারণ মানুষকে তাকে নিয়ে সবসময় উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় থাকতে হয়। গণধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে মামলা (নং ০৭ তারিখ ১২/১১/২০২৩) দায়েরের পর  থেকে আত্মগোপনে চলে যায় সুন্দর আলী। মেয়রের অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ১৪ই মে সন্ধ্যা ৭টায় ও ১৫ই  মে সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে  ফেসবুক লাইভে এসে সুন্দর আলী মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিনকে সরাসরি হত্যার হুমকি  দেয়। সে নাকি মেয়রকে হত্যা করার রায় পেয়েছে। ইতিপূর্বেও একবার সুন্দর আলী মেয়রকে হুমকি দিলে তিনি গত ২রা জানুয়ারি থানায় ডায়েরি (নং ৮৩ তারিখ ০২/০১/২০২৪)। অভিযোগ রয়েছে ক্ষমতাসীন দলেরই এক নেতার ছত্রছায়ায় এই সন্ত্রাসী সুন্দর আলীর উত্থান। তার এমন বেপরোয়া সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে সর্বসাধারণ চরম আতঙ্কে রয়েছেন। সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে চাঁদাবাজিসহ অপরাধ কর্মকাণ্ডে  বেপরোয়া হয়ে উঠে। মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন জানান তার এই আক্রোশ ও সন্ত্রাসী মনোভাবে হত্যার হুমকি প্রদানে তিনি ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। অবিলম্বে তাকে গ্রেপ্তার করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানান। এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) কৈশন্যু গণমাধ্যমকর্মীদের জানান মূলত গণধর্ষণ মামলার পর থেকে সুন্দর আলী আত্মগোপনে রয়েছে। পুলিশ তাকে হন্যে হয়ে খুঁজছে। তাকে গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ