লন্ডনে বাচ্চার কান্না থামানো নিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা বাংলাদেশীর

প্রকাশিত:রবিবার, ১৪ এপ্রি ২০২৪ ০৭:০৪

লন্ডনে বাচ্চার কান্না থামানো নিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা বাংলাদেশীর

ব্রিটেনে বাচ্চার কান্না থামানো নিয়ে স্ত্রীকে ধারালো ছুরি দিয়ে হত্যা করলো এক বাংলাদেশি যুবক। তার নাম হাবিবুর রহমান মাসুম (২৫) ।

জানা যায়, তার দেশের বাড়ী সিলেটের বিশ্বনাথে। গত শনিবার বিকাল আনুমানিক সাড়ে তিনটার সময় ব্রিটেনের ব্রাডফোর্ডে এই ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, দুই বছর পূর্বে ঘাতক মাছুম স্টুডেন্ট ভিসায় ও তার স্ত্রী ডিপেন্ডেন্ট হয়ে ইংল্যান্ডে আসে। ওল্ডহাম শহরে তারা বসবাস করে আসছিল। এরমধ্যে তাদের এক সন্তান জন্মগ্রহন করে। মাঝে মধ্যে সেই বাচ্চা কান্না করলে এতে বিরক্ত হতো ঘাতক হাবিব মাসুম। এনিয়ে স্ত্রীর সাথে তার দুএকবার ঝগড়া হয়েছিল। পরে তাদের স্বজনদের মধ্যস্থতায় বিষয়টি মীমাংসা হয়। কিন্তু ঘাতক কিছুতেই ক্ষান্ত হয়নি।

ভিকটিমের স্বজনরা জানান, স্ত্রীকে এর আগে ছুরি দিয়ে মারতে গেলে পুলিশ কল করা হয়। পুলিশ তাদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বাচ্চা ও তার স্ত্রীকে ব্রাডফোর্ডের আশ্রয়কেন্দ্র প্রেরণ করে। গত শনিবার তার স্ত্রী শহরের একটি শপে বাচ্চা নিয়ে খরছ করতে গেলে সেখানে পৌছে যায় ঘাতক হাবিব মাসুম। স্ত্রীকে গলায় ও ঘাড়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল ত্যাগ করে সে।

শপের মালিক পাকিস্তানি জিও খান বলেন, আমি বাচ্চা ও আশেপাশের মানুষের চিৎকার শুনে বেরিয়ে দেখি মেয়েটি মাটিতে লুটিয়ে পরেছে। গলা কাটা দেখে আমি এ্যাম্বুলেন্স কল করি। আমি মাথা নাড়ানোর চেষ্টা করি কিন্তু মনে হয়েছে সে ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। মেয়েটি আমার শপে প্রায়ই শপিংয়ের জন্য আসতো। অত্যন্ত ভালো মনে হয়েছে মেয়েটিকে।

আইটিভি সুত্রে জানা গেছে, ব্রিটেনের সর্বত্র পুলিশের এলার্ট জারি করা হয়েছে। খুব শীগ্রই ঘাতককে তারা গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হবে। যদি তার কোন সন্ধান পাওয়া যায় তাহলে তাতক্ষনিক ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ