সিলেট মহানগরীর ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত করার দাবিতে সিসিক মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান বুধবার

প্রকাশিত:সোমবার, ১১ ডিসে ২০২৩ ০৭:১২

সিলেট মহানগরীর ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত করার দাবিতে সিসিক মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান বুধবার

সুরমাভিউ:-  বৃহত্তর সিলেটের অরাজনৈতিক কল্যাণমূলক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন সিলেট কল্যাণ সংস্থা (সিকস), সিকস’র অঙ্গ সংগঠন সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থা (সিবিযুকস) ও বাংলাদেশী প্রবাসীদের সবধরনের দাবি উপস্থাপনের বলিষ্ঠ সংগঠন সিলেট প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা (সিপ্রকস) এর যৌথ আয়োজনে শনিবার (০৯ ডিসেম্বর ২০২৩) বিকাল ৫.৩০ ঘটিকায় সিকস’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সিলেট কল্যাণ সংস্থা (সিকস ২০২৪-২০২৭) ও সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থা (সিবিযুকস ২০২৪-২০২৬)-এর প্রস্তাবিত কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ২য় সভা ও ১৫তম সাপ্তাহিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তারা সিলেট মহানগরীর ফুটপাত ও রাস্তা অস্বাভাবিকভাবে দখল হওয়ায় আশংকা প্রকাশ করেন। বক্তারা বলেন, নগরীর অনেক গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় গাড়ি পার্কিংয়ের অবৈধ স্ট্যান্ডে পরিণত হয়েছে। যত্রতত্র গাড়ি পার্কিংয়ের ফলে মহানগরীর ছোট বড় প্রতিটি রাস্তায় অনাকাঙ্খিত যানজট লেগেই আছে। অবৈধ গাড়ি পার্কিয়ের অবস্থা দেখে মনে হয় নগরীতে এসব দেখার দায়িত্বশীল কেউ নেই। নগরীর প্রায় রাস্তা ও ফুটপাতে ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীরা ভ্যান, ঠেলাগাড়ি, চেয়ার টেবিল বসিয়ে জমজমাট ব্যবসা করছে। এতে নগরবাসীর দুর্ভোগ যেমন বেড়েছে, তেমনি সড়কেও বেশিরভাগ সময় লেগে থাকে তীব্র যানজট। জনসাধারণের ফুটপাতে হাঁটার জায়গা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। নগরীর কোনো ফুটপাতেও ভালোভাবে হাটার ব্যবস্থা হারিয়ে গেছে বলে মনে হয়। ফুটপাত ও রাস্তা দখলের কারণে নগরীর বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, জল্লারপার, চৌহাট্রা, আম্বরখানা, রিকাবীবাজার স্টেডিয়াম মার্কেট, কাজলশাহ, লামাবাজার, জিতুমিয়ার পয়েন্ট, তালতলা, ধোপাদিঘিরপাড়, ভার্থখলা, কদমতলী সহ প্রায় প্রতিটি রাস্তার বেশিরভাগ এলাকায় যানজট লেগেই থাকে। বক্তারা বলেন, সড়ক ও ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে কার্যকর পদক্ষেপের অভাব রয়েছে। মাঝে-মধ্যে অভিযান হলেও কাজের কাজ কিছুই হয় না। সভা থেকে সিলেট মহানগরীর সর্বসাধারণের সুবিধার্থে আধ্যাত্মিক রাজধানী পর্যটন নগরী সিলেটকে রাস্তা ও ফুটপাত দখলমুক্ত করার জোর দাবি জানানো হয়। সভায় সিলেট মহানগরীর ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত করার দাবিতে আগামী ১৩ ডিসেম্বর বুধবার সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে জাতীয় যুব দিবস ২০১০-এ জাতীয় যুব পুরস্কার শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠক পদকপ্রাপ্ত, দক্ষ, কর্মমূখী, গতিশীল যুব সমাজের স্বপ্নদ্রষ্টা ও ব্যতিক্রমধর্মী কর্মসূচীর উদ্ভাবক সিলেট বিভাগের সামাজিক যুব কার্যক্রমের কর্ণধার সংগঠন গুলোর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোহাম্মদ এহছানুল হক তাহেরের সভাপতিত্বে ও সৈয়দ রাসেলের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, মোঃ নাজমুল হুসাইন, হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, আব্দুল মুকিত, দিপক কুমার মোদক বিলু, মোঃ আনিসুর রহমান চৌধুরী লিমন, মোঃ শফিকুল ইসলাম, মোঃ রুবেল মিয়া, লায়েক আহমদ ও আব্দুর রহিম।

উল্লেখ্য, গত ২ ডিসেম্বর সিলেট কল্যাণ সংস্থা (সিকস ২০২৪-২০২৭) ও সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থা (সিবিযুকস ২০২৪-২০২৬)-এর প্রস্তাবিত কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ১ম সভা ও ১৪তম সাপ্তাহিক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ