দেড় দশক পর মৌলভীবাজার -২ আসনে নৌকার প্রার্থীকে মনোনয়ন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ২৮ নভে ২০২৩ ০৫:১১

দেড় দশক পর মৌলভীবাজার -২ আসনে নৌকার প্রার্থীকে মনোনয়ন

সেলিম আহমেদ, বিশেষ প্রতিনিধি:-  অবশেষে জোট-মহাজোটের রাজনৈতিক গ্যাঁঢ়াকল থেকে বেরিয়ে এলো কুলাউড়া। আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার -২ (কুলাউড়া) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হলেন শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। তাঁর হাত ধরে প্রায় দেড় দশক পরে মহাজোটের গ্যাঁঢ়াকল মুক্ত হয়ে কুলাউড়া পেলো আওয়ামী লীগের নৌকার দলীয় প্রার্থী। এ উপলক্ষে কুলাউড়া শহরে রোববার সন্ধ্যায় আনন্দ মিছিল করেছে যুবলীগ। উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মইনুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে মিছিল টি শহর প্রদক্ষিণ করে উপজেলা আওয়ামীলীগের অফিসে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

এর আগে রোববার বিকেলে আওয়ামীলীগ সারাদেশে তাদের প্রার্থী ঘোষণা করে। এতে মৌলভীবাজার ২ আসনে আওয়ামীলীগ তাদের প্রার্থী হিসেবে শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলকে মনোনীত করেন।

বর্তমানে টানা ২য় বারের মতো কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। সাবেক কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের পর কুলাউড়ার সন্তান হিসেবে আওয়ামী লীগের নৌকার দলীয় প্রার্থী হিসেবে চমক দেখালেন শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

তথ্যমতে, দীর্ঘদিন ধরে জোট-মহাজোটের রাজনৈতিক গ্যাঁঢ়াকলে পড়ে কুলাউড়া আওয়ামীলীগের হেভিওয়েট কোন দলীয় প্রার্থী পায়নি। ২০০৮ সালে নৌকার প্রার্থী দেওয়া হলেও বিভিন্ন জটিলতায় দলের প্রার্থী জয়ী হতে পারেননি। ওই সময় এখান থেকে মহাজোটের শরীক দল জাতীয় পার্টির লাঙল প্রতীকের নওয়াব আলী আব্বাস খান প্রতিদ্ন্ধিতা করে জয়ী হোন। ২০১৪ সালেও মহাজোটের জাতীয় পার্টির ও ২০১৮ সালে মহাজোটের শরীক বিকল্পধারার প্রার্থী এম এম শাহীন নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করেন। এবারের নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের নাকি মহাজোটের প্রার্থী হবেন এ দ্বিধাদন্ধ ছিলো দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয়দের মাঝে। এছাড়াও প্রায় দুই যুগ ধরে এ আসনে নৌকার জয় অধরা রয়েছে।

এক প্রতিক্রিয়ায় শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, কোন পদ পদবীর লোভে নয় মানুষের কল্যাণে যেনো সব সময় কাজ করতে পারি, এবং সর্বপরি কুলাউড়ার উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবো।