দোয়ারাবাজারে আগাম আমন ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষকরা

প্রকাশিত:সোমবার, ১৩ নভে ২০২৩ ১০:১১

দোয়ারাবাজারে আগাম আমন ধান ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষকরা
দোয়ারাবাজার(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:-  চলতি মৌসুমে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। পাকা ধানের গন্ধে কৃষকদের মনে এখন বেশ প্রফুল্লতা দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে আগাম আমন কাটাও শুরু হয়েছে। এখন মাঠ থেকে ধান কেটে ঘরে তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকেরা। অন্যদিকে  মাঠ থেকে নতুন ধান বাড়িতে তোলার জন্য আঙ্গিনা পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ করছেন কৃষাণীরা।
পাশাপাশি এসব জমিতে শীতের সবজি চাষ করার প্রস্তুতি শুরু করেছেন তারা। ধানের দাম ভালো পেলে বেশি লাভবান হতে পারবেন বলে মনে করছেন দোয়ারাবাজারের কৃষকরা।
দোয়ারাবাজার উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারের মৌসুমে প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়ায় আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। বেশি লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছে কৃষকরা। ইতোমধ্যে উচ্চ ফলনশীল বিনা-৭, ৪৯,ব্রি-ধান ৭,ব্রি-ধান ১৭,ব্রি-ধান-৬২,ব্রি-ধান ৭০,ব্রি-ধান ৮৭ আগাম জাতের ধান কাটা শুরু করে দিয়েছেন উপজেলার কৃষকেরা। এবছর প্রতি বিঘায় ১৫ মণ করে ধানের ফলন হয়েছে। আগাম জাতের ধান কেটে এসব জমিতে অতিরিক্ত ফসল হিসেবে চাষ করা হবে শীতকালীন বিভিন্ন শাক সবজি।
সরেজমিনে গেলে কথা হয় উপজেলার বাংলাবাজার এলাকার কৃষক আব্বাস আলীর সাথে। তিনি জানান, আগাম আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে। এবার আমনের বাম্পার ফলনও হয়েছে। প্রতি বিঘা জমিতে ১৫ মণ করে ধান হয়েছে।
উপজেলার ধান ব্যবসায়ী কামাল উদ্দিন জানান,
নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে বাজারে আমন ধান উঠতে শুরু করেছে। এক হাজার টাকা দরে প্রতিমন ধান বিক্রি হচ্ছে। সামনে আরও দাম বাড়বে। কিছুদিন পর এক ‘হাজার চার”শত টাকা দরে বিক্রির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি।
দোয়ারাবাজার উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ মহসিন জানান,এবছর ১৪’ হাজার ৬’শত ২৫ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ করেছেন কৃষকরা। গত বছরের তুলনায় ১” শত ২৫ হেক্টর বেশি জমিতে ধান চাষ হয়েছে।
প্রাকৃতিক দূর্যোগ না থাকায় এবার আমনের ফলন ও হয়েছে ভালো। আগাম জাতের ধান কেটে একই জমিতে সরিষা, আলু ও শীতকালীন শাক-সবজি চাষ করে কৃষকরা লাভবান হবেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ