কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের তৃতীয় বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার, ১৬ জানু ২০২২ ০৩:০১

সুরমাভিউ:-  কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের তৃতীয় বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিডনী ফাউন্ডেশন এবং সমাজসেবা অধিদপ্তরের সমন্বয়ে একটি ১০তলা ও ২০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল নির্মাণের মাস্টার প্ল্যানের ওপর এই সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার (১৫ জানুয়ারী) সন্ধ্যা ৭টায় সিলেট নগরের রোজ ভিউ হোটেলের মিলনায়তনে এই সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

তৃতীয় বার্ষিক সাধারণ শুরুতে বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের মহাসচিব কর্নেল (অব) মোহাম্মদ আব্দুস সালাম বীর প্রতীক। কর্নেল মোহাম্মদ আব্দুস সালাম (বীরপ্রতীক) কিডনী ফাউন্ডেশনের শুরু থেকে বর্তমান অবস্থার ওপর প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। তিনি কিডনী ফাউন্ডেশনকে বিশেষভাবে আর্থিক সাহার্য্য সহযোগিতা করার জন্য শহীদ শামসুদ্দীন আহমদ ট্রাস্ট, সৈয়দ জাকী হুসেইন, রাহাত হুসেইন, এ. কে. এম নুরুল হক ইকবালসহ অন্য দাতাদের ধন্যবাদ জানান ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি প্রফেসর ডা. জিয়া উদ্দিন আহমদ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী, মেজর জেনারেল আজিজুর রহমান বীর উত্তম, কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের পরিচালক ও ট্রেজারার জুবায়ের আহমদ চৌধুরী, ডা. এম এ মজিদ, ডা. ফাতেমা আহমদ, মিসেস নুরুন নাহার সালাম, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ডা. কাজী মুশফিক আহমদ, পরিচালক ও কো-অর্ডিনেটর মিসেস ফরিদা নাসরীন, ডা. নাজরা চৌধুরী, অ্যাডভোকেট দেওয়ান গোলাম রব্বানী, জুয়েল চৌধুরী, এ, কে, এম আতাউল করিম, মোস্তফা কামাল, মি. কল্লোল আহমদ, সাংবাদিক ও কলামিষ্ট নজরুল ইসলাম বাসন, ডা. মামুন, ডা. জাকির হোসেন তপু, ডা. হাসান তারেক, জিল্লুর আহমদ চৌধুরী, নাফিজ জুবায়ের চৌধুরী।

বাংলাদেশ কিডনী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর হারুন-উর-রশিদ ও এমডি মিসেস টিনি ফেরদৌস রশিদ ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি সভায় বক্তব্য রাখেন ও কিডনী ফাউন্ডেশনের কর্মতৎপরতার ভূয়সী প্রশংসা করেন।
সভার বিশেষ অতিথি এবং কিডনী ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষক রাশেদা কে চৌধুরী কিডনি ফাউন্ডেশনের সেবার মান, কর্মতৎপরতা ও ভবিষ্যৎ প্ল্যান সম্পর্কে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এই হাসপাতাল সিলেটের মানুষের দুর্ভোগ লাঘব করতে সাহায্য করবে। কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি প্রফেসর জিয়াউদ্দিন আহমদ তার বক্তব্যে এই হাসপাতালের ভিশন, সেবার মান এবং সকল প্রকার ইমার্জেন্সি রোগীর সেবা প্রদান করার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সবাইকে আশ্বাস প্রদান করেন। ট্রেজারার জুবায়ের আহমদ চৌধুরী কিডনী ফাউন্ডেশনে গরিব রোগীদের বিনামূল্যে ডায়ালাইসিস এবং যাকাত ফান্ডের সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন।

এই অনুষ্ঠানে বিদেশ থেকে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞগণ যোগদান করেন। তাদের মধ্যে ডা. মালেকা আহমদ, শহীদ শামসুদ্দীন আহমদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সালাউদ্দিন আহমদ, একই পরিবারের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব সৈয়দ জাকী হোসেন এবং রাহাত হোসেন যারা এই হাসপাতালের জন্য উল্লেখযোগ্য অনুদান প্রদান করেছেন তারাও আমেরিকা থেকে যোগদান করেন। আরও যোগদান করেন প্রফেসার সাইদুজ্জামান চৌধুরী, ডা. শোয়েব আহমদ চৌধুরী, ডা. নাহরিন আহমেদ।

আরও উপস্থিত ছিলেন- কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের প্রজেক্ট ম্যানেজার ওবায়েদ বিন বাছিত (সুমন), চ্যানেল এস টেলিভিশন সিলেট ব্যুরো চিফ মঈন উদ্দিন মঞ্জু, কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো: মহিবুর রহমান রাসেল, দৈনিক উত্তরপূর্ব’র সিনিয়র সাংবাদিক সজল ঘোষ, কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের ম্যানেজার আতিকুর রহমান প্রমুখ।

কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের মহাসচিব কর্নেল (অব) মোহাম্মদ আব্দুস সালাম বীর প্রতীক জানান, ২০২০ সালের ১৭ জানুয়ারি সিলেট শহরতলীর ৬নং টুকের বাজার ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের নাজিরগাঁওস্থ স্থানে প্রায় আড়াই বিঘা জমির উপর ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০তলা বিশিষ্ট ২০০ শয্যার সিলেটের কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেটের হাসপাতালের নির্মাণকাজ গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় শুরু হয়। হাসপাতালের নির্মাণকাজ এখন পুরোদমে চলছে। কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতাল সিলেটের নির্মাণ কাজ শেষ হলে কিডনী রোগীরা সুচিকিৎসা সেবা সহজেই পেয়ে যাবেন। -বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ