শ্রমিক নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে : সামাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট

প্রকাশিত:শুক্রবার, ২৭ আগ ২০২১ ০৭:০৮

সুরমাভিউ:-  সামাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ ও যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং শ্রমিক ফ্রন্টের আঞ্চলিক কার্যালয়ে হামলাকারি ঝুঁট সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করার দাবিতে অদ্য ২৭ আগস্ট শুক্রবার বিকাল ৫টায় আম্বরখানাস্হ দলীয় কার্যালয়ে সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার আহ্বায়ক আবু জাফর এর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা শহীদ মিয়া, শহিদুল ইসলাম, কোরবান আলী, স্বপন আহমদ, ইউসুফ আলী, ইমরান আহমদ, বাচ্চূ মিয়া, সুরুজ আলী, রজব, সাইফুল ইসলাম, প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ৮আগষ্ট ২০২১ সন্ধ্যায় সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের নারায়ণগঞ্জ জেলার গাবতলি আঞ্চলিক কার্যালয়ে স্থানিয় ঝুঁট সন্ত্রাসী সুমন এবং জুয়াড়ী জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে হামলা করে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফ এবং রিকশা চালক সংগ্রাম পরিষদের নারায়ণগঞ্জ জেলার আহবায়ক মেহেদি হাসান কে আহত করা, মোবাইল-নগদ অর্থ লুট ও ভাংচুর চালানোর জন্য দায়িদের গ্রেফতারের দাবি জানান। নেতৃবৃন্দ, মামলা দায়েরের পরও ঝুঁট সন্ত্রাসী সুমন-জাহাঙ্গীর গংদের এখনো গ্রেফতার না করার নিন্দা জানিয়ে বলেন, ৮ আগষ্ট হামলার পরপরই ফতুল্লা থানায় সুনির্দিষ্ট আসামীদের নামে মামলা দায়েরের পরও আসামীদের গ্রেফতার করা হয়নি এবং ঐ অঞ্চলে শ্রমিকদের অধিকারের পক্ষে কথা বলার কেন্দ্র হয়ে ওঠা কার্যালয়টি উচ্ছেদ এবং শ্রমিক নেতাদের হত্যার অভিপ্রায়ে পরিচালিত হামলার অপরাধকে আড়াল করতে হামলাকারী আসামীদের দিয়ে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ ও যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফের নামে দুইটি মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ১০ ও ১১ আগষ্ট নারায়ণগঞ্জ আদালতে দায়েরকৃত দুটি মামলা পি.বি.আই ও ফতুল্লা থানার ওসিকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের সচেতন মহলের সবাই জানেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ সার্বক্ষণিক রাজনৈতিক কর্মী। তারা ব্যাক্তি জীবনে কোন ধরণের ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে যুক্ত নয় এবং যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরিফ একটি পোষাক শিল্প কারখানায় চাকরি করেন। তিনিও কোন ধরণের ব্যবসার সাথে যুক্ত নয়। ফলে এই নেতৃবৃন্দের সাথে ব্যবসায়িক লেনদেনের অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহিন এবং তাদের সুনাম নষ্ট ও হয়রানি করার হীন প্রচেষ্টা।

নেতৃবৃন্দ প্রত্যাশা করেন তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ প্রভাবমুক্ত নিরপক্ষে তদন্ত করবেন এবং  আবু নঈম খান বিপ্লব, সেলিম মাহমুদ ও সাইফুল ইসলাম শরিফের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার হবে। নেতৃবৃন্দ, ফতুল্লার গাবতলি অঞ্চলের পোষাক শিল্প শ্রমিকদের আতংক ঝুঁট সন্ত্রাসী সুমন, জুয়াড়ী জাহাঙ্গীরসহ শ্রমিক ফ্রন্ট কার্যালয়ে নেতৃবৃন্দের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ