দোয়ারাবাজার থানা পুলিশের অভিযানে চুরি হওয়া মহিষ বিক্রির টাকাসহ আটক ৩

প্রকাশিত:মঙ্গলবার, ০৩ আগ ২০২১ ০৮:০৮

এনামুল কবির মুন্না:-  দোয়ারাবাজারে চুরি হওয়া মহিষ বিক্রির ১ লক্ষ ৮৯ হাজার টাকাসহ তিন মহিষ চোরকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন উপজেলার বোগলা ইউনিয়নের ক্যাম্পেরঘাট গ্রামের ছায়েদ আলী’র পুত্র মোফাজ্জল হোসেন বেণু (৪৫), একই গ্রামের মৃত আব্দুল হারিছের পুত্র সোহরাব হোসেন (৩৬), নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলার সাতপাইকা গ্রামের মৃত রাজিউদ্দিনের পুত্র মোঃ সানাউল্লাহ (৩৮)।

উল্লেখ্য গত (১৫ জুলাই) উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের এরুয়াখাই গ্রামের ইসমাঈল আলীর পুত্র হানিফ আলী ও
সুনামগঞ্জ জেলার রঙ্গারচর ইউনিয়নের হরিনাকান্দি গ্রামের হানিফ আলী’র পুত্র জমির আলীর ৪ টি মহিষ এরুয়াখাই হাওর হতে চুরি হয়ে যায়।

এ বিষয়ে দোয়ারাবাজার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন গত সোমবার (১ আগস্ট)। সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপারের নির্দেশে সহকারী পুলিশ সুপার (ছাতক সার্কেল) সার্বক্ষনিক তদারকিতে এবং দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ দেবদুলাল ধর এর তত্ত্বাবধানে দোয়ারাবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত)ম নিরুজ্জামান খান, এসআই সম্রাজ মিয়া, এএসআই আবু নাইমসহ একটি চৌকস পুলিশ টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ও স্থানীয় তদন্তে মহিষ চোর চক্র সনাক্ত করতে সক্ষম হন।

জগন্নাথপুর হতে মহিষ চোর সিন্ডিকেট মোফাজ্জল হোসেন বেনু(৪৫), নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলা হতে সোহরাব হোসেন (৩৬) ও সানাউল্লাহ (৩৮) কে স্বীকারুক্তিমূলক মহিষ বিক্রির নগদ (১ লক্ষ ৮৯ হাজার) টাকাসহ আটক করেন পুলিশ।

আটককৃত দুইজনের বিরুদ্ধে আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ দেবদুলাল ধর বলেন, চুরি হওয়া মহিষ বিক্রির (১লক্ষ ৮৯) হাজার টাকাসহ চোর চক্রের তিনজনকে আটক করে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। তাদের সহযোগী সকল আসামী গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ