৩নং খাদিমনগর ইউনিয়ন পরিষদের ২০২১-২২ অর্থবছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

প্রকাশিত:শুক্রবার, ২৮ মে ২০২১ ১১:০৫

সিলেট সদর উপজেলার ৩নং খাদিমনগর ইউনিয়ন পরিষদের ২০২১-২২ অর্থবছরের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা ২৭ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরিষদ কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে এবং সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) সিলেট এর সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাজী মহুয়া মমতাজ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সিলেট সদর।
ইউপি সচিব তপন মজুমদারের সঞ্চালনায় ও স্বজন সদস্য শাহ শাহেদা আক্তারের উপস্থাপনায় এবং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ দিলোয়ার হেসেন এর সভাপতিত্বে উন্মুক্ত বাজেট অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন সনাকের স্থানীয় সরকার বিষয়ক উপ-কমিটির আহবায়ক লক্ষীকান্ত সিংহ। অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ দিলোয়ার হোসেন ২০২০-২০২১ অর্থবছরের আয়-ব্যায় ও সম্পাদিত কার্যক্রমের প্রতিবেদন এবং আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য ২,২০,০০,০০০ (দুই কোটি বিশ লক্ষ) টাকার বাজেট জনগণের সামনে পেশ করেন। পরিষদের ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত খসড়া বাজেটে প্রত্যাশিত আয় দেখানো হয়েছে ২,২০,১০,০০০ (দুই কোটি বিশ লক্ষ দশ হাজার) এবং সম্ভাব্য ব্যয় দেখানো হয়েছে ২,২০,০০,০০০ (দুই কোটি বিশ লক্ষ) টাকা। এর মধ্যে অন্যতম খাতসমূহ হলো:- মহিলা, যুব ও শিশু উন্নয়নখাতে ৩ লক্ষ টাকা, দুর্যোগ ব্যবস্থা ও ত্রাণখাতে ৩ লক্ষ টাকা, শিক্ষা খাতে ১২ লক্ষ টাকা, স্বাস্থ্য খাতে ৬ লক্ষ টাকা, ভৌত অবকাঠামো খাতে ৬১ লক্ষ টাকা, আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো খাতে ৬০ লক্ষটাকা, দারিদ্র হ্রাসকরণ, সামাজিক নিরাপত্তা ও প্রাতিষ্ঠানিক সহায়তা ১ লক্ষটাকা, পল্লীউন্নয়ন ও সমবায় ব্যয় ১ লক্ষটাকা ব্যয় ধরা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে টিআইবি প্রতিনিধি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মো: আতিকুর রহমান, কো-অর্ডিনেটর, সিভিক এনগেজমেন্ট বিভাগ, টিআইবি। সনাক-সিলেটের পক্ষ হতে বক্তব্য প্রদান করেন সনাক সভাপতি সমিক সহিদ জাহান। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন কাজী মহুয়া মমতাজ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সিলেট সদর। তিনি বলেন, অত্র ইউনিয়নে অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান ও আয়ের উৎস রয়েছে, তা কাজে লাগিয়ে এবং সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে ইউনিয়নবাসীর উন্নয়নে কাজ করা সম্ভব। তিনি পরিষদের পঞ্চ-বার্ষিকী পরিকল্পনার আলোকে বার্ষিক বাজেট প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের দিকে গুরুত্বারোপ করেন।
বাজেট ঘোষণা বক্তব্যে পরিষদ চেয়ারম্যান নাগরিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন এবং মুক্ত আলোচনায় যে সকল প্রস্তাব ও মতামত প্রদান করা হয়েছে সে গুলোর আলোকে বাজেটে সংশোধনী এনে চুড়ান্ত করা হবে বলে তিনি আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি বলেন, চাহিদার তুলনায় সম্পদ সীমিত, তাই অগ্রাধিকার বিবেচনা করে কাজ করতে হয়। তিনি আরো বলেন, জনসম্মূখে বাজেট ঘোষণার মাধ্যমে জনগণ বাজেট সম্পর্কে জানতে পারে এবং এর মাধ্যমে পরিষদের কার্যক্রমের স্বচ্ছতা ও জবাব দিহিতার বহিঃপ্রকাশ ঘটে। অনুষ্ঠানে পরিষদের সদস্য/সদস্যা, কর্মকর্তা-কর্মচারী, নাগরিকগণ ছাড়াও সাংবাদিক,বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধি, শিক্ষক, চা-শ্রমিক নেতা, আদিবাসী জনগোষ্টীর প্রতিনিধি, সনাক, স্বজন, ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডসসদস্য, টিআইবির কর্মকর্তাসহ শতাধিক লোক অংশ গ্রহণ করেছেন। সভায় বক্তারা এটি বাংলাদেশের প্রথম ভার্চ্যুয়াল বাজেট সভা বলে আখ্যায়িত করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ